ভারতের পশ্চিম ত্রিপুরা জেলা আদালত

ভারতের পশ্চিম ত্রিপুরা জেলা আদালত , জামিন পেয়েছেন তরুণ তৃণমূল সভাপতি

সায়নী ঘোষ। রবিবার ত্রিপুরা পুলিশ একটি গাড়ি ঠেলে খুনের চেষ্টা সহ একাধিক অভিযোগে

সাইনিকে গ্রেপ্তার করেছে। গ্রেফতারের পর তাকে শারীরিকভাবে হয়রানি করা হয় বলেও

অভিযোগ করেন তিনি।সোমবার বিকেলে সাইনিকে আগরতলা আদালতে তোলা হয়। সূত্রের

খবর, পুলিশ সাইনিকে দু’দিন নিজেদের হেফাজতে রাখার অনুরোধ করেছিল। কিন্তু শুনানি

শেষে আপিল খারিজ করে দেন বিচারক। আদালত ত্যাগ করে সাইনি বলেন, “সত্যের জয়

হয়েছে, আদালতে আমার বিশ্বাস ছিল। আমি যেভাবে লড়াই করেছি, আমি সেভাবে লড়াই

করব। মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে আমাদের দমন করা যাবে না।” তিনি যোগ করেছেন: “আমাকে

শারীরিকভাবে হেনস্থা করা হয়েছে। আমি যেভাবে ছিলাম। রাতে হামলা হলে আমি আতঙ্কিত

হয়ে পড়েছিলাম।এরপর আমাকে অন্য থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।’আদালতে সায়নী, থানায়

ভারতের পশ্চিম ত্রিপুরা জেলা আদালত

দেখা করতে পারেননি নেতারাআদালতে সায়নী, থানায় দেখা করতে পারেননি নেতারা
ত্রিপুরা পুলিশ অভিযোগ করেছিল যে ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের একটি সভা পাস করার সময় সাইনি “খেলা হবে” স্লোগান দিয়েছিলেন। তার বিরুদ্ধে গাড়ি চাপা দিয়ে কয়েকজনকে হত্যার চেষ্টার অভিযোগও রয়েছে। তার বিরুদ্ধে খুনের চেষ্টা, উসকানিমূলক বক্তব্য, অশালীন মন্তব্য, ফৌজদারি ষড়যন্ত্রসহ একাধিক মামলা করেছে পুলিশ। সাইনির জামিন পাওয়ার পর সাংসদ সুস্মিতা দেব বলেন, সাইনির বিরুদ্ধে পুলিশের অভিযোগ বানোয়াট। সাইনির আইনজীবীর দাবি, ঘটনার সময় সাইনি গাড়ি চালাচ্ছিলেন না। ফলে তাকে গাড়ি চাপা দিয়ে হত্যার চেষ্টার অভিযোগ ভিত্তিহীন।গত শনিবার রাতে নির্বাচনী প্রচারণা শেষে হোটেলে ফেরার সময় আগরতলায় যাওয়ার পথে যানজটে আটকা পড়ে তাদের গাড়ি। গাড়িতে

ড্রাইভারের পাশে বসেছিলেন সাইনি

এলাকার লোকজন সাইনিকে চিনতে পেরে হাত নাড়ল। তৃণমূল নেতাদের দাবি, মানুষ সায়নীকে দেখে ‘খেলা ভয়ে’ স্লোগান দিয়েছে। তৃণমূল নেতারাও প্রতিক্রিয়া জানিয়ে বলেন, খেলা হবে। যানজট কাটিয়ে সৈন্যরা হোটেলে ফিরে আসেন। তৃণমূল নেতাদের অভিযোগ, শনিবার মধ্যরাত থেকে পুলিশ তাদের হোটেল ঘেরাও করে। পুলিশ রবিবার সকাল ১১টায় হোটেলে প্রবেশ করে সাইনিকে খুঁজতে এবং জোর করে তাকে থানায় নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। পরে নেতারা নাস্তা করে থানায় পৌঁছে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন। পরে গতকাল সন্ধ্যায় থানায় গেলে তাকে ‘হিট অ্যান্ড রান’ (গাড়ি দুর্ঘটনার পর পালিয়ে যাওয়া) অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়। রাতে তাকে মহিলা সেলে রাখা হয়।

আরো পড়ুন

About admin

Check Also

চাকরি ও বেতনের প্রলোভন দেখিয়ে

চাকরি ও বেতনের প্রলোভন দেখিয়ে

চাকরি ও বেতনের প্রলোভন দেখিয়ে , নারীদের বিদেশে পাঠানোর একটি চক্র ছিল। পরে তাদের দুবাইতে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *