যুক্তরাজ্যের সংসদ সদস্য হেলেন গ্রান্ট

যুক্তরাজ্যের সংসদ সদস্য হেলেন গ্রান্ট , রাজধানী কড়াইলের বেদে বস্তি পরিদর্শন

করেছেন। চলমান প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনযাত্রার মান উন্নয়ন প্রকল্পের কার্যক্রম পরিদর্শন

করতে সোমবার সকাল সাড়ে ১০টায় তিনি বস্তি পরিদর্শন করেন।এ সময় স্থানীয় বাসিন্দাদের

সঙ্গে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।সভায় নারীদের অগ্রগতির জন্য যুক্তরাজ্য সরকারের

সমর্থনের আশ্বাস দিয়ে হেলেন গ্রান্ট বলেন, বাল্যবিবাহ, নারীর প্রতি সহিংসতা এবং সহিংসতা

নারীর অগ্রগতির অন্তরায়। দরিদ্র জনবসতিতে এটি একটি বড় সংকট। অনেকেই তাদের

সন্তানদের লেখাপড়ার খরচ বহন করতে পারেন না। এছাড়া হয়রানি ও নির্যাতনের ভয়ে মেয়ে

শিশুকে বাড়িতে রাখাকে ঝুঁকিপূর্ণ মনে করেন অভিভাবকরা। তাই পরিপক্কতার আগেই বিয়ে

দেওয়া হয়। করোনার সময় এই সমস্যা বেড়েছে। বাল্যবিবাহের পাশাপাশি পরিবার ও সমাজে

নারী নির্যাতন ও সহিংসতাও বেড়েছে।কড়াইলের বৈদিক বস্তিতেও এ চিত্র দেখা যায় বলে

জানিয়েছেন প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন প্রকল্পের দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তারা। তবে,

হেলেন গ্রান্ট এই সমস্যাগুলি সমাধানে যুক্তরাজ্য সরকারকে তার সহায়তার আশ্বাস

যুক্তরাজ্যের সংসদ সদস্য হেলেন গ্রান্ট

দিয়েছেন।কড়াইলের বৈদিক বস্তিতে এই প্রকল্পের মাধ্যমে শিক্ষা ভাতা, ব্যবসায়িক অনুদান, পুষ্টি সহায়তা এবং শিক্ষানবিশদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। যা শিক্ষা ও নারী উপার্জনের মাধ্যমে বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ, নারীর প্রতি সহিংসতা ও সহিংসতা কমাতে ভূমিকা রাখছে।হেলেন গ্রান্টকে ড্রয়িং বেঁধে উপহার দিচ্ছে দুই কিশোরদুই কিশোর হেলেন গ্রান্টকে একটি অঙ্কন সহ উপহার দিচ্ছেনপ্রকল্পের নিরাপদ সম্প্রদায় কমিটি সচেতনতা বৃদ্ধি এবং নির্যাতন বন্ধ করতে সামাজিক ও আইনি সহায়তা প্রদান করছে। এছাড়া স্থানীয় জনগণের উন্নয়নে হাঁটার পথ, নর্দমা, সোলার প্যানেল ও টয়লেটের মতো অবকাঠামো নির্মাণ করা হচ্ছে। তবে প্রকল্পের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এখনও অনেকের সাহায্য প্রয়োজন। প্রকল্পের ধারাবাহিকতা রক্ষায় ভবিষ্যতে প্রয়োজনীয় সহযোগিতার আশ্বাসও দেন হেলেন গ্রান্ট।ব্রিটিশ হাইকমিশনের ডেভেলপমেন্ট ডিরেক্টর জুডিথ হারব্যাটসন, ইউএনডিপি বাংলাদেশের আবাসিক প্রতিনিধি সুদীপ্ত মুখার্জি, প্রকল্পের কর্মকর্তা, স্থানীয় প্রতিনিধি ও বস্তিবাসী উপস্থিত ছিলেন।সোমবার বায়ু দূষণে বিশ্বের শীর্ষে রয়েছে ঢাকা। বৈশ্বিক বায়ুর মান পর্যবেক্ষণকারী

সুইস-ভিত্তিক সংস্থা আইকিউ এয়ারের

এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ঢাকার পাশাপাশি দূষণকারীর তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী কলকাতা শীর্ষে রয়েছে।সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে রাজধানীর বাতাসের মান ছিল ১৬০, যা বাতাসের সূচকে অস্বাস্থ্যকর বলে জানা গেছে।ঢাকায় বায়ু দূষণের অতি সূক্ষ্ম কণা পিএম-২.৫ এর উপস্থিতি স্বাভাবিকের চেয়ে প্রায় ২৮ গুণ বেশি।বায়ুর গুণমান সূচক 200 ছাড়িয়ে গেলে, এটি ‘খুব অস্বাস্থ্যকর’ হিসাবে বিবেচিত হয়।গত শুক্র ও শনিবার ঢাকার বাতাসের মানও অস্বাস্থ্যকর ছিল। এই দুই দিনে বাতাসের মানের সূচক ছিল যথাক্রমে 165 এবং 16। গতকাল ছিল ‘খুব অস্বাস্থ্যকর’অস্বাস্থ্যকর বায়ু মানের দিক থেকে সার্বিয়ার বেলগ্রেড, পাকিস্তানের লাহোর এবং ভারতের দিল্লি যথাক্রমে তৃতীয়, চতুর্থ ও পঞ্চম স্থানে রয়েছে।গবেষকরা বলছেন, ঢাকার এ ধরনের বাতাস স্বাস্থ্যের ওপর নানাভাবে প্রভাব ফেলছে। ফুসফুসের রোগ, নিউমোনিয়া, হাঁপানি, শ্বাসকষ্টসহ নানা জটিলতায় ভুগছে ঢাকার মানুষবায়ুর গুণমান পরিমাপ করা হয় এয়ার ভিজ্যুয়াল এর বায়ু দূষণ পর্যবেক্ষণ যন্ত্র, একটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংস্থা ব্যবহার করে। বায়ুর গুণমান নির্ণয় করা হয় ।

আরো পড়ুন

About admin

Check Also

BKKB Job Circular 2024 Released

In the realm of career opportunities, staying updated with the latest job circulars is essential …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *